মসনদ-এ-রুমি ।। কিস্তি : ৬

তেরো শতকের ফারসি ভাষার কবি জালালউদ্দিন মুহাম্মদ রুমি; পুরো নামের বদলে যাঁর নামের জন্য কেবল রুমিই চলে। রুমির কাব্যসম্ভার থেকে বিভিন্ন গুরুত্বপূর্ণ উক্তির অনুবাদ করেছেন দেবজ্যোতি ঘোষ

 

৫১

সূর্যালোকে বিলীন হওয়া মেঘের মতো,

আমি নিঃশেষ হবো তোমাকে ভালোবেসে।

 

৫২

যার না আছে অর্জনের ইচ্ছা,

আর না আছে হারানোর ভয়,

নিজের প্রতি অনাদর যার,

জেনো সেই মুক্ত হয়।

 

৫৩

মাটি হও,

বুনো ফুলেরা ঘর বাঁধবে তোমার বুকে।

পাথরে আর কে বাঁচে বলো?

 

৫৪

অপেক্ষা মানে কাঁটার পরে গোলাপ,

অপেক্ষা মানে রাতের পরে দিন,

অপেক্ষা মানে পূর্ণ চাঁদের তরে

প্রেমিকের প্রতীক্ষা অন্তহীন।

 

৫৫

খোদাতায়ালা বানালো স্বচ্ছ ছাঁচে ঢেলে,

তারপর পাপ-পুণ্য তো মানুষের হাতে।

 

৫৬

চিরবসন্ত এ হৃদয়ে,

নিত্য শিশিরসিক্ত,

সজ্জিত নব পল্লবে।

 

৫৭

ঠোঁটের শহরে জারি হয় কারফিউ,

তবু হৃদয়ে বান ডাকে কথার স্রোত!

 

৫৮

যে চোখ তোমারে পায় না দেখতে,

সে চোখ অন্ধ হোক!

 

৫৯

তোমার আমার ভালোবাসার গভীরতায়,

ঈর্ষা জাগে সমুদ্র-বক্ষে!

 

৬০

আজব দুনিয়ার কারবার,

নিজ হাতে চাবি নিয়ে

মানুষ রচনা করে আপন কারাগার!

খোলা দরজার এক জেলে

বসত তোমার আমার।

 

পড়ুন ।। কিস্তি : ৬

মসনদ-এ-রুমি ।। কিস্তি : ৫

মন্তব্য করুন

Please enter your comment!
Please enter your name here